Barak UpdatesBreaking News

ভোটসামগ্রী বিলি শুরু, ভিভিপ্যাটের ব্যাটারি খুলতে হবে জেনে চিন্তা

১৬ এপ্রিলঃ কাছাড় জেলার ভোটকর্মীদের জন্য ভোটসামগ্রী বিতরণ মঙ্গলবার সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা থেকে ভোটগ্রহণ। সে জন্য মঙ্গলবারই একাংশ ভোটকর্মীকে রওয়ানা হতে হচ্ছে। তাঁদের এ দিন ইভিএম সহ বিভিন্ন রকমের ফর্ম, ডায়েরি ইত্যাদি প্রদান করা হয়। মূলত এ দিন লক্ষ্মীপুর ও কাটিগড়ার ভোটকর্মীদের ইভিএম সহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হয়। বাকিদের ভোটসামগ্রী বুধবার বিতরণ করা হবে।

সকালে কিছু ভোটকর্মীর নিজেদের টিমের মানুষকে খুঁজে পেতে কষ্ট হয়। ফোন করে করে ধরতে হয় তাঁদের। অধিকাংশ অবশ্য এই কাজটা আগেই সেরে নিয়েছেন। কোনও ভোটকেন্দ্রে প্রিসাইডিং অফিসার থেকে নিরাপত্তা কর্মী পর্যন্ত কার কার ডিউটি, প্রত্যেককে তা প্রত্যেকের মোবাইল নম্বরসহ জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

এ দিনের ভোটসামগ্রী বিলি প্রক্রিয়া শুরু থেকেই শান্তিপূর্ণভাবে চলছে। তবে ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক খুব বাজে বলে কাজ এগোচ্ছে ধীরগতিতে। জেলাশাসক ও পর্যবেক্ষক গোটা বিষয় দেখে গিয়েছেন। এর পরও অবস্থার উন্নতি নেই। এর দরুন ভোটকর্মীদের দূরবর্তী ভোটকেন্দ্রের উদ্দেশে রওয়ানা হতে দেরি হচ্ছে। এ দিকে খাখা রোদ। ফলে ভোটকর্মীদের সামগ্রী মিলিয়ে নিতে গিয়ে কষ্ট হচ্ছিল। কোথাও ছায়া নেই। জেলাশাসক তা দেখে দ্রুত পলিথিন শেডের ব্যবস্থা করেন।

এ দিকে, নতুন নতুন নির্দেশের দরুন প্রিসাইডিং অফিসার সহ ভোটকর্মীরা দুশ্চিন্তায় পড়েন। সর্বশেষ নির্দেশ আসে ভিভিপ্যাট নিয়ে। তিনদিন আগে কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভিভিপ্যাটের ব্যাটারি খুলে প্রিসাইডিং অফিসারদের জমা করতে হবে।  এই নির্দেশ যখন জেলা প্রশাসনের কাছে এসে পৌঁছায়, তখন প্রশিক্ষণের সমস্ত পর্ব ফুরিয়ে গিয়েছে। ফলে এ দিন ভোটসামগ্রী পেয়েই প্রিসাইডিং অফিসাররা ভিভিপ্যাট-টা ভাল করে দেখতে চান। কিন্তু ভোটশেষের আগে এর ব্যাটারি খোলা যাবে না বলে তারা নাড়াচাড়ারও সুযোগ পাচ্ছেন না। প্রশিক্ষণের সময় তাঁদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, ভিভিপ্যাটে যেন একেবারে ধরা না হয়। ব্যাটারি লাগানো অবস্থাতেই তাঁরা ভোটশেষে জমা করবেন।

প্রশিক্ষকরা অবশ্য জানিয়েছেন, এ মোটেও কঠিন কাজ নয়। যে কেউ এর ব্যাটারি খুলতে পারবেন। এ নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই। নির্বাচন শাখা সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৩ মে ভোটগণনা। এতদিন ভিভিপ্যাটের ব্যাটারি লাগানো থাকলে তার কর্মক্ষমতা নিঃশেষ হয়ে যেতে পারে। এর মধ্যে স্ট্রংরুমে গিয়ে ব্যাটারির অবস্থা জানা বা প্রয়োজনে ব্যাটারি বদলানোও সম্ভব নয়। তাই কমিশন নতুন নির্দেশ পাঠিয়েছে।

কাছাড়ের নির্বাচন শাখা সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৮ এপ্রিল ভোটগ্রহণ পর্ব শেষ হওয়ার পর নেট্রিপেই ইভিএম এবং ভিভিপ্যাট গ্রহণ করা হবে। প্রতিটি মেশিন স্ট্রংরুমে নিয়ে রাখার পর রাত ১১টায় ওই রুম পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হবে। প্রিসাইডিং অফিসারের ডায়েরি ১৯ এপ্রিল সকাল ১১টার সময় যাচাই করে দেখা হবে। সে সময় সমস্ত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের ঝাঁপিরবন্দের নেট্রিপে উপস্থিত থাকতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। সূত্রটি আরও জানিয়েছেন, স্ট্রংরুম সিল করে দেওয়ার পর  নেট্রিপে ইভিএম প্রহরার জন্য সমস্ত রাজনৈতিক দল যে নির্বাচনী এজেন্টদের নিয়োগ করবে, তাদের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সমস্ত তথ্য জেলা নির্বাচন আধিকারিকের কার্যালয়ে প্রদান করা হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker